Monthly Archives: June 2013

মাংসখেকো উদ্ভিদ

যেসব এলাকার মাটিতে পুষ্টি উপাদান কম [বিশেষ করে নাইট্রোজেন] এবং মাটি ভেজা থাকে, সেসব অঞ্চলে মাংসখেকো উদ্ভিদ বেশি জন্ম নেয়। তাই মাটি থেকে পরিপূর্ণ পুষ্টি না পাওয়ায় খাবারের অভাবটা উদ্ভিদ পোকামাকড় খেয়ে মিটিয়ে থাকে। মাংসখেকো উদ্ভিদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য কয়েকটি উদ্ভিদ হলো কলস উদ্ভিদ, ফ্লাইপেপার ট্র্যাপ, স্ন্যাপ ট্র্যাপ, বল্গাডার ট্র্যাপ, লবস্টার-পট ট্র্যাপ, ভেনাস ফ্লাইট্র্যাপ ইত্যাদি। বাংলাদেশের সিলেট অঞ্চলে এই উদ্ভিদের খোঁজ …

Read More »

অদ্ভুত প্রাণী ক্যাঙ্গারু

ক্যাঙ্গারু অস্ট্রেলিয়ায় সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায় । এ প্রাণীটি দেখতে যেমন অদ্ভুত তেমনি এর গায়েও অনেক শক্তি। তবে অস্ট্রেলিয়ায় রেড ক্যাঙ্গারু বা লাল ক্যাঙ্গারু সবচেয়ে বিখ্যাত। ক্যাঙ্গারু হলো স্তন্যপায়ী প্রাণী। এরা মারসুপিয়াল গোত্রের প্রাণী। মারসুপিয়াল মানে যে প্রাণী তার সন্তানকে পেটের থলের ভেতরে রেখে লালন-পালন করে। বেশিরভাগ ক্যাঙ্গারুর বাস অস্ট্রেলিয়ায়। ক্যাঙ্গারু শুকনো পরিবেশ খুব পছন্দ করে। তারা যেসব এলাকায় থাকে সেখানে …

Read More »

বাংলাদেশের ডলফিন

আজিজুর রহমান বাংলাদেশের নদ-নদীতে বসবাসকারী অতি পরিচিত শুশুকই হচ্ছে এক প্রজাতির ডলফিন। এরা জলজ স্তন্যপায়ী প্রাণী। এদের বৈজ্ঞানিক নাম Platrisa gengetica. ইংরেজি নাম Ganges river dolphin, Ganges susu. আর প্রমিত বাংলায় এদের বলা হয় গাঙ্গেয় শুশুক। বাংলাদেশের পদ্মা, মেঘনা, যমুনা, ব্রহ্মপুত্র, কুশিয়ারা, কর্ণফুলি, সাঙ্গুসহ প্রায় নদ-নদীই এদের বিচরণ ক্ষেত্র। ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অব নেচার (আইইউসিএন)-এর গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্যমতে, বাঁধ …

Read More »

চোখ

খুব সাধারণ, খুব সাধারণ এরা আছে আমাদের চারপাশে, যাদের আমরা হরহামেশাই দেখি কিংবা ভয়ানক সুন্দর কুমির, ভয়ে পিলে চমকানো কুমির…… পাঠকের জন্য আমাদের নিবেদন তাহাদের দৃষ্টির সৌন্দর্য……… চলুন ঘুরে আসি চোখের ভেতর……        

Read More »

সাদা বাঘ রহস্য

রয়েল বেঙ্গল টাইগার কিংবা দ্রুতগতি সম্পন্ন চিতাই হোক সব বাঘের গায়েই তুলির টানে অদ্ভুত কালো হলুদ রঙের কারসাজি থাকে। কিন্তু ব্যাঘ্রকুলের অনেকের রং আবার সাদা। কেন এই সাদা রং তা নিয়ে সম্প্রতি মাথা ঘামিয়েছেন চীনের বিজ্ঞানীরা। ১৯৭০ সালে কলকাতার আলিপুর চিড়িয়াখানায় এক বাঘ দম্পতি তেরোটি শিশুর জন্ম দেয়। যাদের মধ্যে তিনটি সাদা। চীনের পেকিং বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী সু-জিন লুয়ো ও তার …

Read More »

পাইরেটস অব ফিলিপিন্স

‘পাইরেটস’ অব ফিলিপিন্স প্রখ্যাত অভিনেতা জনি ডেপের ‘পাইরেটস অব ক্যারিবিয়ান’-এর মতো কোনো চলচ্চিত্র নয়। এই জলদস্যুদের নিবাস মূলত ইন্দো-মালয়েশিয়া ও অস্ট্রেলিয়ার বৃষ্টি অরণ্য। কারডিওকনডিলা পাইরাটা সম্প্রতি ফিলিপিন্সে গভীর কালো চোখের এই নতুন প্রজাতির পিঁপড়ের সন্ধান পেলেন এক জার্মান পতঙ্গবিজ্ঞানী। পিঁপড়ে-সাম্রাজ্যে গভীর কালো চোখের অধিকারী শুধু মহিলা পিঁপড়েরাই। পুরুষ পিঁপড়েরা এমন সৌভাগ্য থেকে বঞ্চিত। বিজ্ঞানীরা দেখেছেন, এই প্রজাতির পিঁপড়ের দেহ ঈষৎ …

Read More »

প্রাচীন উড়–ক্কু মাছ

পাখিদের মতো প্রাচীন উড়–ক্কু মাছ উড়তে পারতো। মাছ উড়তে পারে এটা সত্যিই এক বিস্ময়কর ব্যাপার। সাগরের পানি থেকে লাফ দিয়ে পাখির মতোই দ্রুতগতিতে কিছুদূর উড়ে যায় উড়–ক্কু মাছ। গ্রীষ্মমণ্ডলীয় সাগরে উড়–ক্কু মাছেরা নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রেখেছে দীর্ঘদিন ধরে। পাখি ও ডাইনোসরদের আগে থেকেই এ মাছের অস্তিত্ব ছিল, এখনো রয়েছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, ২৪ কোটি বছর আগে থেকেই সমুদ্রে রয়েছে কয়েক প্রজাতির …

Read More »

লাল বনমোরগ

লাল বনমোরগের ইংরেজি নাম Red Junglefowl। লাতিন নাম  Gallus gallus  ।এরা ফ্যাসিয়ানিডি  (phasianidae) গোত্রের অন্তর্গত সর্বাধিক পরিচিত একটি প্রজাতি। ধরে নেয়া হয় পৃথিবীর সব মোরগ-মুরগি আবির্ভূত হয়েছে এই বনমোরগের প্রজাতির কিছু কিছু নমুনার গৃহপালনের মাধ্যমে। গত কয়েক দশক ধরে লাল বনমোরগের সংখ্যা কমে গেলেও এখনো তা আশঙ্কাজনক পর্যায়ে পৌঁছায়নি। সে কারণে আই.ইউ.সি.এন বনমোরগকে আশঙ্কাহীন প্রজাতি হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। লাল বনমোরগ খুব সুন্দর ঝালরাবৃত লালচে, সোনালি, …

Read More »

ভারতে বন্যা ও ভূমিধস মানবসৃষ্ট!

ভারতের উত্তরাখণ্ডে হিন্দু তীর্থযাত্রী ব্যাপক বৃদ্ধি এবং পানিবিদ্যুৎ প্রকল্পগুলো ভারতের এ রাজ্যে আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসের সৃষ্টি করতে পারে বলে মনে করছেন অনেক ভারতীয়।  ভারত হিমালয় অঞ্চলের এ যাবৎকালের ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসের বিপর্যয় থেকে উদ্ধার পাওয়ার প্রচেষ্টা চালানোর মধ্যে অনেকে প্রশ্ন করছেন, বিশেষ করে হিন্দু তীর্থ ভ্রমণ ও পানিবিদ্যুৎ প্রকল্পগুলো এ ভয়াবহ দুর্যোগ সৃষ্টিতে কতখানি ভূমিকা পালন করেছে? গার্ডিয়ান। …

Read More »

বৃষ্টি আরো দু’তিন দিন

মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সাগরে লঘুচাপ তৈরি হচ্ছে। এর প্রভাবে সারাদেশে চলমান বৃষ্টি আরো দু’তিন দিন টানা চলতে পারে বলে পূর্বাভাষ দিয়েছে আবহাওয়া অফিস। এসময়ে সমুদ্র বন্দরগুলোর উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার ও মংলা সমুদ্রবন্দকে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। …

Read More »