চাঁদ আজ পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে

বছরে এই দিনটি একবারই আসে, চাঁদ তার পূর্ণাঙ্গ রূপ নিয়ে হাজির হয়। এ সময় বছরের অন্য যে কোনো সময়ের তুলনায় চাঁদ পৃথিবীর সবচেয়ে কাছাকাছি অবস্থানে থাকে। তাই আজ রোববার (২৩ জুন) পূর্ণাঙ্গ চাঁদ দেখতে আকাশে চোখ রাখতে পারেন অনেকে।  তবে আকাশ মেঘলা হওয়ার সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না।
বৈদ্যুতিক বাতির বানানো শহরে চাঁদের রাত উপভোগের তেমন সুযোগ থাকে না। যে অন্ধকার কাটিয়ে জ্যোৎস্না ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে কার্যত শহরে সে অন্ধকারই শহরে নেই। চাঁদ তাই গ্রামে যে অপরূপ রূপ নিয়ে হাজির হয়, শহরে তা তেমন দৃশ্যত নয়। গ্রামে জ্যোৎস্নার সঙ্গে যুক্ত হয় জোনাকির উৎসব, ঝিঁ ঝিঁর ডাক। মাঠে অথবা পথে দাঁড়িয়ে এ দৃশ্য যেন অন্য এক আবহ সৃষ্টি করে।
তবু সবখানেই বিশেষ দিনে চাঁদ দেখার প্রস্তুতি চলে। পৃথিবীর নিকটতম এই পূর্ণাঙ্গ চাঁদকে বলা হয় ‘ফুল মুন’। উপবৃত্তাকার কক্ষপথে পৃথিবী থেকে চাঁদের এই নিকটতম অবস্থানকে জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা অনুভূ বা পেরিজি বলেন। ওই সময় চাঁদ পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব হবে মাত্র ৩ লাখ ৮৩ হাজার ১০৪ কিলোমিটার।Bright Full Moon
পৃথিবীর এত কাছে আবারো চাঁদকে পেতে অপেক্ষা করতে হবে ২০১৪ সালের আগস্ট মাস পর্যন্ত। অনুভূ সময়ের কাছাকাছি সূর্য, পৃথিবী ও চাঁদ প্রায় একটি সরল রেখায় অবস্থান করবে, সেজন্য তখনই পূর্ণচন্দ্র বা পূর্ণিমা হবে। যেহেতু অনুভূ ও পূর্ণিমা প্রায় একই সময়ে সংঘটিত হচ্ছে, সেহেতু এই চাঁদ গড় দৃশ্যমান চাঁদের চাইতে বড় ও উজ্জ্বল দেখাবে। আজ (রোববার) সন্ধ্যা ৬টা ৪০ মিনিটে এই পূর্ণ চাঁদ দেখা যাবে। তবে চাঁদ পৃথিবীর কাছাকাছি আসতে শুরু করবে বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে। এই সময়টিতেই পৃথিবীর সবচেয়ে নিকটে থাকবে চাঁদ।
এ সম্পর্কে অনুসন্ধিৎসু চক্রের জ্যোতির্বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি শাহজাহান মৃধা বেনু বলেন, ‘রোববারের পূর্ণিমার উজ্জ্বল চাঁদ অবলোকনের মাধ্যমে আমরা পৃথিবীর সঙ্গে এই প্রাকৃতিক উপগ্রহটির সম্পর্ক জানতে আরো আগ্রহী হব। এ ঘটনায় পৃথিবীর ওপর উল্লেখযোগ্য কোনো প্রভাব পড়বে না, তবে স্বাভাবিকের তুলনায় জোয়ারের মাত্রা বেশি হতে পারে।’ যারা টেলিস্কোপের মাধ্যমে পর্যবেক্ষণ করবেন তাদের ফিল্টার ব্যবহার করার পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। এক্সপোজারের সময় ও অ্যাপারচার কমিয়ে চাঁদের ছবি তোলার জন্য এটি একটি ভালো সুযোগ।
এদিকে এই জ্যোতির্বৈজ্ঞানিক ঘটনা যথাযথভাবে পর্যবেক্ষণের জন্য অনুসন্ধিৎসু চক্র কয়েকটি ক্যাম্পের আয়োজন করেছে। ঢাকার কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষণ ক্যাম্পটি অনুষ্ঠিত হবে শিশু একাডেমিতে। এ ক্যাম্পে ৮ ইঞ্চি স্মিড-ক্যাসিগ্রেইন টেলিস্কোপ ও ৪ ইঞ্চি মাকসুতভ ক্যাসিগ্রেইন টেলিস্কোপ থাকবে।
এছাড়া ঢাকার বাইরে টেলিস্কোপের মাধ্যমে অনুসন্ধিৎসু চক্র ও অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সোসাইটি অব রুয়েট যৌথভাবে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় খেলার মাঠে ও সিলেটে অনুসন্ধিৎসু চক্র সিলেট শাখা ৮৭ মজুমদারী অম্বরখানায় পৃথক ক্যাম্পের আয়োজন করেছে। ক্যাম্পগুলো আজ সন্ধ্যা ৬.৩০ মিনিটে শুরু হবে। সেখানে অংশ নিতে পারবেন আগ্রহী ছাত্র-শিক্ষক ও সাধারণরাও।

সূত্র : ওয়াশিংটন পোস্ট ও নাসা।

Check Also

এসেছে বাংলার ওয়াইল্ড মেন্টর

এই অ্যাপটির প্রধান উদ্দেশ্য, বিভিন্ন প্রাণির সামগ্রিক বিবৃতি উপস্থাপন। বৈজ্ঞানিক নাম থেকে শুরু করে, কোনো একটি নির্দিষ্ট প্রাণির বিভিন্ন বয়সের ছবি, স্বভাব, আচরণ, আকার-আকৃতি, রঙ, খাদ্য, ইত্যাদি সামগ্রিক ধারণা পাওয়া যাবে এখানে খুব সহজেই। এমনকি পৃথিবীর কোথায় কোথায় এর অস্তিত্ব আছে, সেটিও ম্যাপের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে এখানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *