ডোরাকাটা জেব্রা

Zebras_wallpapers_12জেব্রাদের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য তাদের গায়ের ডোরাকাটা দাগগুলো। মজার ব্যাপার কি জানেন ? আমরা জেব্রাদের বলি কালো কালো ডোরাওয়ালা সাদা ঘোড়ার মতো একটা প্রাণী ।কিন্তু আফ্রিকানরা  এর একদমই উল্টো চিন্তা করে। ওদের ধারণা, জেব্রা হলো একটা কালো প্রাণী, যাদের সারা গায়ে সাদা সাদা ডোরাকাটা দাগ আছে! জেব্রাদের গায়ে এরকম ডোরাকাটা দাগ কেন থাকে? আর যদি বা থাকলোই, সেই ডোরাকাটা কেন-ই বা সাদাকালো ? অনেক বিজ্ঞানীর মতে, জেব্রার এই ডোরাকাটা দাগগুলো আসলে ওদের ছদ্মবেশের জন্য। ওই দাগের কারণে আফ্রিকার গহিন জঙ্গলে ওরা সেসব প্রাণীর চোখে ধুলো দেয়, যারা ওদের ধরে ধরে মেরে খেয়ে ফেলে। জেব্রার  আসল শত্রু সিংহ। ওরাই মূলত জেব্রাদের ধরে ধরে খায়। আর এই সিংহরা কিন্তু কালার ব্লাইন্ড, বাংলায় বললে বর্ণান্ধ! মানে বিভিন্ন রং আলাদা করে চিনতে পারে না। সেই সিংহের চোখে ধুলো দেয়ার জন্য তো সাদাকালো ডোরাকাটাই সবচেয়ে ভালো কাজে দেয়।
জেব্রারা তো সবসময়ই দল বেঁধে ঘুরে বেড়ায়। তখন কি আর এই ক্যামোফ্লেজ, মানে ছদ্মবেশ কাজে লাগে? আসলে এই ডোরাকাটা ছদ্মবেশ সবচেয়ে বেশি কাজে লাগে তখনই। কারণ, ওরা যখন দল বেঁধে ঘোরে, তখন ওরা একজন আরেকজনের এতই কাছে থাকে, সিংহরা বুঝতেই পারে না যে ওগুলো আসলে জেব্রার একটা বিশাল পাল! ওদের কাছে মনে হয়, এটা একটা বিশাল আকারের অদ্ভুত কোনো জন্তু বা অন্য কিছু, যেটা অনবরত নড়ছে। এমনকি, যদি কোনোভাবে বুঝতেও পারে যে এটা আসলে জেব্রার একটা বিশাল দল, তখনো সমস্যা থেকেই যায়। সিংহ যে বুঝতেই পারে না, কোন জেব্রাটা কোনদিকে যাচ্ছে! আর তাই জেব্রাদের শিকার করতেও ওদের খুব সমস্যা হয়।
ডোরাকাটা দাগের আরো ব্যবহার আছে। এই ডোরাকাটা দাগ কিন্তু আমাদের আঙ্গুলের ছাপের মতোই। মানুষের আঙুলের ছাপ কারো সঙ্গেই কারোটা মেলে না। সেরকম জেব্রাদের এই ডোরাকাটা দাগগুলোও অনন্য বা ইউনিক; কোনো জেব্রার গায়ের ডোরাকাটা দাগের সঙ্গে অন্য কোনো জেব্রার ডোরাকাটা দাগ মিলবে না।

জুনায়েদ তানভীর ১৩/০৭/২০১৩

Check Also

জলবায়ু পরিবর্তনঃ যে ৯ টি কারণে ২০১৮ তে আমরা আশাবাদি হতেই পারি!

সাদিয়া লেনা আলফি গেল বছরটি ছিলো জলবায়ুর জন্য বেশ আশঙ্কাজনক। বিষয়টি মূলত ঘটেছে বর্তমান বিশ্বের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *