বাঘ সংরক্ষণে দেশব্যাপী দুই-বছর জুড়ে চলবে সচেতনতা কার্যক্রম

‘বাঘ আমাদের গর্ব-বাঘ সুরক্ষা করবো’ শিরোনামে সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্য সুরক্ষা ও বাঘ সংরক্ষণে দেশব্যাপী সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে দুই বছর মেয়াদী ‘জাতীয় পর্যায়ে জনসচেতনতা কার্যক্রম’-এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে ১১ ফেব্রুয়ারি।

রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের মাননীয় সচিব ড. কামাল উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া ব্লুম বার্নিকাট এবং ইউএসএইড বাংলাদেশ-এর মিশন ডিরেক্টর জেনিনা জেরুজেলস্কি এই জনসচেতনতা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন। জনসচেতনতা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আগে মাননীয় সচিব’সহ অন্যান্য অতিথিরা ‘টাইগার টক’ শীর্ষক একটি আলোচনায় অংশ নেন।national tigers awareness campaign

দুই বছরব্যাপী এই জনসচেতনতা কার্যক্রমটি ইউএসএইড-এর বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্পের অংশ। যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা (ইউএসএইড) এবং বাংলাদেশ সরকারের বন বিভাগের যৌথ উদ্যোগে পরিচালিত এ প্রকল্পের লক্ষ্য হলো মহাবিপন্ন বাঘ সংরক্ষণ এবং এর আবাসস্থল সুন্দরবনের জীববৈচিত্র্যের সুরক্ষা নিশ্চিত করা। চার বছর মেয়াদী এই প্রকল্প বাস্তবায়নে মূল সংস্থা হিসেবে কাজ করছে বাংলাদেশের জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণে ২০০৩ সাল থেকে কর্মরত বেসরকারি সংস্থা ওয়াইল্ডটিম। সহযোগী সংস্থা হিসেবে এই প্রকল্পে কারিগরি সহযোগিতা দিচ্ছে স্মিথসোনিয়ান ইন্সটিটিউশন এবং বাংলাদেশ সেন্টার ফর এডভান্সড স্টাডিজ। tiger conservation awareness campaign

এই জনসচেতনতা কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাঘের আকৃতিতে গড়া ‘টাইগার ক্যারাভ্যান’ নামক একটি প্রদর্শনী বাসও উদ্বোধন করা হয়েছে যেখানে সুন্দরবনের গাছ-পালা, নদ-নদী’সহ বিভিন্ন প্রাণি, যেমন: বাঘ, হরিণ ও কুমিরের ভাষ্কর্য এবং বিশাল আকৃতির চিত্রকর্মের সাহায্যে সুন্দরবনের একটি ত্রি-মাত্রিক আবহ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। এই ‘টাইগার ক্যারাভ্যান’ সারা দেশের ১০০টি স্থানে ভ্রমণ করবে এবং বাঘ সুরক্ষা বিষয়ক বিভিন্ন প্রদর্শনী, পথনাটক, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং জনপ্রিয় শিল্পী, অভিনেতা-অভিনেত্রী এবং ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ’সহ বিভিন্ন আয়োজনের মধ্যে দিয়ে এ বিষয়ে মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করবে।
‘বাঘ আমাদের গর্ব-বাঘ সুরক্ষা করবো’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে টাইগার ক্যারাভ্যান বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে দেশের শিক্ষিত জনগোষ্ঠী ও তরুণ সমাজকে বাঘ সুরক্ষায় আরও সম্পৃক্ত করবে। এ প্রচারণা ও টাইগার ক্যারাভ্যানের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের লিঙ্ক #iStandForTigers -এ ইতোমধ্যেই ব্যাপক সাড়া পাওয়া যাচ্ছে এবং সবাই স্বতস্ফূর্তভাবে তথ্য, ছবি ও ভিডিও শেয়ার করছেন।
কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আয়োজিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন জনাব মো. ইউনুছ আলী, প্রধান বন সংরক্ষক, বাংলাদেশ বন বিভাগ; ড. কার্ল উরস্টার, ডেপুটি ডিরেক্টর ইকোনোমিক গ্রোথ অ্যান্ড এভায়রনমেন্ট অ্যান্ড এনার্জি টিম লিডার, ইউএসএইড বাংলাদেশ; অধ্যাপক নিতিশ চন্দ্র দেবনাথ, বোর্ড মেম্বার, ওয়াইল্ডটিম এবং প্রাক্তন উপাচার্য্, চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়; অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ারুল ইসলাম, প্রধান নির্বাহী, ওয়াইল্ডটিম; এবং গ্যারি কলিনস, চিফ অব পার্টি, ইউএসএইড-এর বাঘ সংরক্ষণ প্রকল্প।
এই জনসচেতনতা কার্যক্রমের উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ১২ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সারাদিন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ প্রাঙ্গণে শিশুদের জন্য বাঘ ও সুন্দরবন বিষয়ে চিত্রাঙ্কণ প্রতিযোগিতা’সহ খ্যাতনামা শিল্পীদের চিত্রাঙ্কন ও প্রদর্শনী, লোকসংগীত এবং জনপ্রিয় ব্যান্ডদল জলের গান ও লালন-এর পরিবেশনা থাকবে। সকাল ৮:০০টা থেকে রাত ৮:০০টা পর্যন্ত এ অনুষ্ঠান চলবে।
এ প্রচারণা কার্যক্রমের সহযোগী হিসাবে যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, গাজী টিভি, দি ডেইলি স্টার, বিডিনিউজটুয়েন্টিফোর.কম, এবিসি রেডিও এবং কিশোর আলো।

Check Also

এসেছে বাংলার ওয়াইল্ড মেন্টর

এই অ্যাপটির প্রধান উদ্দেশ্য, বিভিন্ন প্রাণির সামগ্রিক বিবৃতি উপস্থাপন। বৈজ্ঞানিক নাম থেকে শুরু করে, কোনো একটি নির্দিষ্ট প্রাণির বিভিন্ন বয়সের ছবি, স্বভাব, আচরণ, আকার-আকৃতি, রঙ, খাদ্য, ইত্যাদি সামগ্রিক ধারণা পাওয়া যাবে এখানে খুব সহজেই। এমনকি পৃথিবীর কোথায় কোথায় এর অস্তিত্ব আছে, সেটিও ম্যাপের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে এখানে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *