বি.আই.পির সহযোগিতায় বিশ্ব বসতি দিবস-২০১৬ উদযাপন করলো পাবিপ্রবি ও রুয়েট

লিসান আসিব খান 

dsc_5445

নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে গত ৪ ও ৫ অক্টোবর বিশ্ব বসতি দিবস-২০১৬ উদযাপিত করে যথাক্রমে রুয়েট ও পাবিপ্রবি ।

১৯৮৫ সালে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে গৃহীত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ১৯৮৬ সাল থেকে প্রতিবছর অক্টোবর মাসের প্রথম সোমবার বিশ্ব বসতি দিবস পলিত হয়ে আসছে। দিবসটি পালনের লক্ষ্য হচ্ছে- শহর, নগরের সার্বিক অবস্থা, বাসস্থান সম্পর্কিত মানুষের মৌলিক অধিকার, সবার জন্য পর্যাপ্ত বাসস্থানের সংস্থান ইত্যাদি বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করা । প্রতি বছর সুনির্দিষ্ট একটি শ্লোগান নির্ধারন করে দিবসটি পালন করা হয়। এ বছরে শ্লোগান নির্ধারন করা হয়েছে ‘হাউজিং এট দ্য সেন্টার’ ।

dsc_5764

গত ৫ অক্টোবর নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ,পাবিপ্রবি ও ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্স যৌথভাবে বিশ্ব বসতি দিবস উপলক্ষ্যে এক বর্ণাঢ্য র‍্যালী ও সেমিনার এর আয়োজন করে। এ উপলক্ষ্যে সকালে ডঃ ওয়াজেদ আলী মিয়া বিজ্ঞান ভবনের গ্যালারী ২ এ অনুষ্ঠিত হয় সেমিনার । এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের  উপাচার্য প্রফেসর ড. আল-নকীব চৌধুরী  । বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সভাপতি পরিকল্পনাবিদ ডঃ একেএম আবুল কালাম , বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারন সম্পাদক ডঃআকতার মাহমুদ, প্রকৌশল অনুষদের ডীন ডঃ মোঃ সাইফুল ইসলাম, এবং প্রক্টর আওয়াল জয়। এছাড়াও ছিলেন পরিকল্পনাবিদ সালমা এ. শফি, চুয়েটের সহকারী অধ্যাপক মো. রাশিদুল হাসান উদয় এবং পরিকল্পনাবিদ মনিজা বিশ্বাস। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগের চেয়ারম্যান মোঃ আশরাফুজ্জামান প্রামাণিক। ।

dsc_5652

আর আগে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ৪ অক্টোবর মঙ্গলবার নগর ও অঞ্চল পরিকল্পনা বিভাগ, রুয়েট ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্স( রাজশাহী লোকাল চ্যাপ্টার )যৌথভাবে বিশ্ব বসতি দিবস উদযাপন করে ।এতে প্রধান অতিথি ছিলেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম ।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সভাপতি পরিকল্পনাবিদ ডঃ এ কে এম আবুল কালাম এবং আরডিএ চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ বজলুর রহমান । এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারন সম্পাদক ডঃ আকতার মাহমুদ , আরডিএ রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নগর পরিকল্পনাবিদ আজমেরী আশরাফী ,স্থপতি-পরিকল্পনাবিদ সালমা এ. শফি, চুয়েটের সহকারী অধ্যাপক মো. রাশিদুল হাসান উদয় এবং পরিকল্পনাবিদ মনিজা বিশ্বাস ।

dsc_6004

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন , আমাদের দেশে আবাসন সংকটে রয়েছে যেমন, তৃতীয় বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোতেও তেমনি। তাছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনসহ নানা কারণে অসংখ্য মানুষ উদ্বাস্তু হওয়ার আশঙ্কার মধ্যে রয়েছে। আর বাংলাদেশসহ এশিয়া অঞ্চলের অবস্থা আরও করুন। এই পরিস্থিতি মোকাবেলা করে টিকে থাকা গোটা বিশ্ববাসীর জন্যই একটা চ্যালেঞ্জ হয়ে দেখা দিয়েছে। এই পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব হিসেবে যে বিপুল জনগোষ্ঠী উদ্বাস্তু হয়ে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে, সেটা মোকাবেলা করার কৌশল উদ্ভাবন করতে হবে আমাদের ।

Check Also

জলবায়ু পরিবর্তনঃ যে ৯ টি কারণে ২০১৮ তে আমরা আশাবাদি হতেই পারি!

সাদিয়া লেনা আলফি গেল বছরটি ছিলো জলবায়ুর জন্য বেশ আশঙ্কাজনক। বিষয়টি মূলত ঘটেছে বর্তমান বিশ্বের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *